ঢাকা, Monday, 20 May, 2024

sabbirদর্শক পেটানো এবং ম্যাচ অফিসিয়ালদের হুমকি দেয়ার অপরাধে বিসিবির কঠোর শাস্তির মুখে পড়লেন জাতীয় দলের ক্রিকেটার সাব্বির রহমান। অনুমেয়ই ছিল কঠোর শাস্তির মুখে পড়তে যাচ্ছেন সাব্বির। অবশেষে সেটাই সত্যি প্রমাণিত হলো।
চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে এনসিএলের শেষ রাউন্ড চলাকালে এক ক্ষুদে দর্শককে প্রহার করা এবং ম্যাচ অফিসিয়ালদের হুমকি দেয়ার অপরাধে এ শাস্তির মুখে পড়েন সাব্বির।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন আজ বিকেলে সংবাদ সম্মেলন ডেকে সাব্বিরের শাস্তির ঘোষণা দেন। সেখানেই তিনি জানান, জাতীয় দলের চুক্তি থেকে বাদ দেয়া হয়েছে তাকে।

তবে সাব্বিরকে আরো কঠোর শাস্তি দেয়ার জন্য বিসিবির ডিসিপ্লিনারি কমিটি সুপারিশ করেছে বলে জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি।
ডিসিপ্লিনারি কমিটি থেকে সাব্বিরের শাস্তির ব্যাপারে যে সুপারিশ বিসিবির কাছে পাঠানো হয়েছে, তার মধ্যে রয়েছে ২০ লাখ টাকা জরিমানা, ৬ মাসের জন্য ঘরোয়া ক্রিকেটে নিষেধাজ্ঞা।

একই সঙ্গে এবারই তাকে শেষ সুযোগ দেয়া হচ্ছে বলে সুপারিশ করা হয়। ভবিষ্যতে এ ধরনের অপরাধ করলে আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ করা হতে পারে।

ঘটনার মূলে জানা যায়, সদ্যসমাপ্ত জাতীয় ক্রিকেট লিগের শেষ রাউন্ডে রাজশাহী-ঢাকা মেট্রো ম্যাচের দ্বিতীয় দিন। দুপুর ১টা ৪৩ মিনিটে ড্রেসিংরুম থেকে মাঠে নামার পথে গ্যালারি থেকে এক খুদে দর্শক মজা করে তাকে ‘ম্যাও’ বলে ডাক দেন।
পরে এক লোককে দিয়ে ডেকে এনে ১০-১২ বছরের ওই ছেলেকে ডেকে এনে সাইটস্ক্রিনের পেছনে ওই কিশোরকে একাধিক থাপ্পড় মারেন সাব্বির।

তবে তার থেকেও কঠোর অভিযোগ প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনায় জানা গেছে, জাতীয় দলের এ ক্রিকেটার সরাসরি হুমকি দিয়ে বসেন ম্যাচের কর্মকর্তাদের। তিনি নাকি হুমকি দিয়ে বলেছিলেন, আমার নামে বিসিবিতে অভিযোগ করলে খবর আছে!
ওই ম্যাচের রেফারি ছিলেন শওকাতুর রহমান। তিনি তখন পাল্টা সাব্বিরের কাছে জানতে চান, ‘কার খবর আছে?’ জবাবে সাব্বির বলেন, ‘আপনাদের সবার।’