আসুন, সম্মিলিতভাবে শীতার্তদের পাশে দাঁড়াই

আসুন, সম্মিলিতভাবে শীতার্তদের পাশে দাঁড়াই

cffআমরা যারা এই নগরের বাসিন্দা তাদের গায়ে হয়তো এখনো শীত সেভাবে লাগছে না। শহরে টের পাওয়া না গেলেও গ্রামাঞ্চলে কিন্তু শুরু হয়ে গেছে শীতের প্রকোপ। এক টুকরো শীতের কাপড় যার নাই সে বোঝে শীতের কষ্ট! আর সে যদি হয় শিশু বা বৃদ্ধা বা বৃদ্ধা – বুঝতেই পারছেন কেমন হতে পারে তার অবস্থা!! এ ছাড়া এ সময়ে ছড়িয়ে নানা রকম ঠাণ্ডাজনিত রোগবালাই। তাই সব মিলিয়ে অসহায় দুস্থ মানুষদের কাছে শীত নিয়ে আসে দুর্দশা! কষ্ট! শীতের প্রকোপে প্রতি বছরই বাংলাদেশে কিছু মানুষের মৃত্যু হয়! বাংলাদেশের গ্রামাঞ্চলগুলোতে শীতকালে বৃষ্টির পানির মত ঝিরঝিরে কুয়াশা পড়ে।

তীব্র শীতে স্থবির হয়ে যায় সব কিছু। বৃদ্ধ নারী পুরুষ শিশু সহ অনেক অসহায় মানুষ এই শীত কাটায় খুবই কষ্টে। পাতলা ফিনফিনে এক টুকরো কাপড়ে কাপতে থাকে মানুষটি। আমরা যারা শহরে থাকি তাদের মধ্যে যারা এসব পরিবেশে না গিয়েছি তারা আসলে ধারনাও করতে পারবো না শীত মানুষের জন্য কত দুর্ভোগ নিয়ে আসে।

একটা সময়ে দেশের প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী সহ অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ শীতের সময়টায় কম্বল বিতরণ করতেন। এখন আর সে সব দৃশ্য দেখা যায় না। তার বদলে আমরা দেখি প্রতি বছর সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী অসংখ্য সংগঠন তরুণ তরুণী এই কর্মযজ্ঞে ঝাঁপিয়ে পড়ছে। দুঃস্থ অসহায় মানুষদের পাশ গিয়ে দাঁড়াচ্ছে। জেলার পর জেলা তারা তাদের সীমিত সামর্থ্য দিয়ে কাভার করার চেষ্টা করছে। যেখানেই শীতার্ত মানুষ, শৈত্য প্রবাহ সেখানেই কেউ না কেউ বা কোন সংগঠন সেই সব দরিদ্র অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াচ্ছে।

ক্রাউডফান্ডিং ফাউন্ডেশন দীর্ঘদিন থেকে শীতার্তদের পাশে রয়েছে। আমরা আমাদের নিজেদের জমানো ফান্ডের পাশাপাশি বন্ধু শুভাকাঙ্ক্ষীদের কাছ হতেও সহায়তা, পুরনো কাপড় সংগ্রহ করি; প্রয়োজনে রাস্তায় ক্যাম্পেইন করে তহবিল সংগ্রহ করি এবং সবশেষে প্রাপ্ত তহবিলের পুরোটা দিয়েই একটি নির্ধারিত অঞ্চলের শীতার্ত মানুষদের কাছে শীতবস্ত্র পৌঁছে দেই। এভাবেই গত বছরগুলোতে নিয়মিত আর্ত মানবতার সেবায় অবদান রাখার চেষ্টা করে যাচ্ছি।

অসহায় শীতার্তদের উষ্ণতা দিতেই কাজ করে যাচ্ছে সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ক্রাউডফান্ডিং ফাউন্ডেশন। এবার শীতবস্ত্র বিতরণের জন্য আমরা যাবো ঢাকার অসহায় ছিন্নমূল মানুষের কাছে, আর কুড়িগ্রামের দরিদ্র মানুষদের কাছে। আর্ত-মানবতার সেবায় নিবেদিত সংগঠন ক্রাউডফান্ডিং ফাউন্ডেশন আপনার সহযোগিতা কামনা করছে।

এই মানবিক কাজে আপনি তিনভাবে যুক্ত হতে পারেন:

০১। শারীরিকভাবে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে আমাদের কাজে যুক্ত হতে পারেন।
০২। আপনার বাসায় থাকা অতিরিক্ত গরম জামা বা পুরনো কম্বলটি দিয়ে দিতে পারেন।
০৩। যে কোন পরিমাণের অর্থনৈতিক সহায়তা করে যুক্ত হতে পারেন। হোক সেটা ৫০ বা ১০০ টাকা।

অর্থনৈতিক সহায়তা বিকাশ করুন এই একাউন্ট নাম্বার (ক্রাউডফান্ডিং ফাউন্ডেশন পারসোনাল নাম্বার): 01911102644

কার্যক্রমে সহায়তা জমা দেবার শেষ তারিখ: জানুয়ারি ৩১, ২০১৮

উদ্যোগ: ক্রাউডফান্ডিং ফাউন্ডেশন

উল্লেখ্য ২০১৫ সনে ক্রাউডফান্ডিং ফাউন্ডেশন’র যাত্রা শুরুর পর থেকে বাংলাদেশের দরিদ্র মানুষ তথা আর্ত মানবতার কাজে নিজেদের নিয়োজিত করে। তারই ধারাবাহিকতায়  ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় ক্রাউডফান্ডিং ফাউন্ডেশন ত্রাণ সরবরাহ করে, সেখানে শীতের সময়টায় অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ায় ক্রাউডফান্ডিং ফাউন্ডেশন। সেই ছিল শুরু! তারপর নিয়মিতভাবে প্রতি বছর শীতার্তদের পাশে দাঁড়িয়েছে ক্রাউডফান্ডিং ফাউন্ডেশন। রংপুর, মানিকগঞ্জ, ঢাকা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, বরিশাল সহ দেশের বেশ কিছু জেলায় অসহায় শীতার্ত মানুষের পাশে ছিলাম। এ ছাড়াও  জাতীয় দুর্যোগেও বেশ কিছু কার্যক্রম নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে এই সংগঠনটি।

কম্বল সহ যে কোন শীতবস্ত্র বা অর্থনৈতিক সহায়তা আমাদের কাছে পৌঁঁছাতে যোগাযোগ করুন: ০১৯১১১০২৬৪৪,০১৭১৬৫৪০০২০,০১৯৪৬৪০২৮৮৭,০১৭৪৯০৫৬৬৩৩

আসুন মানবিক মানুষ হই। সম্মিলিত প্রচেষ্টায় গড়ে তুলি মানবিক সমাজ।
ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Notice: ob_end_flush(): Failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/purebd/public_html/aaa/shadhinkantha.com/wp-includes/functions.php on line 5373