রাজশাহী নগর বিএনপির সভাপতি হচ্ছেন বুলবুল কাজী শাহেদ, রাজশাহী

bulbulরাজশাহী মহানগর বিএনপি সভাপতি হচ্ছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের বরখাস্তকৃত মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। দলটির দায়িত্বশীল একাধিক নেতা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তার সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক কে থাকছেন এ নিয়ে এখন চলছে আলাপ-আলোচনা। তবে আগের কমিটির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলনকেই এ পদে রাখার পক্ষে কেন্দ্র। বিএনপি সূত্র জানায়, বর্তমান সভাপতি মিজানুর রহমান মিনুকে চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা করা হয়েছে। ফলে নগর বিএনপির কমিটি থেকে তাকে সরিয়ে নিচ্ছে দলটি। এ অবস্থায় রাসিকের বরখাস্ত হওয়া মেয়র বুলবুলের ওপর আস্থা কেন্দ্রের। শিগগিরই এ কমিটি ঘোষণা করা হবে বলেও জানিয়েছেন দলটির নেতারা। নগর বিএনপির বর্তমান সভাপতি মিজানুর রহমান মিনু জানান, নগর কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে।

শিগগিরই কেন্দ্র কমিটি ঘোষণা করতে যাচ্ছে। বুলবুলকে সভাপতি করা হচ্ছে এমন ইঙ্গিত দিয়ে তিনি জানান, তার কাছ থেকে মতামত নেওয়া হয়েছে। তিনি ইতিবাচক মতামত দিয়েছেন। তবে সিটি নির্বাচনের মনোনয়ন নিয়ে বুলবুল ও মিলনের মধ্যে যে বিরোধ ছিল তা কমিটি ঘোষণায় কোনো নেতিবাচক প্রভাব পড়বে না বলে মনে করেন তিনি। সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবেন। রাসিকের বরখাস্তকৃত মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল জানান, দল যদি তাকে এমন দায়িত্ব দেয় তাহলে তা পালনে সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাবেন। তিনি বলেন, যুবদলের সভাপতি থাকাকালীন তিনি দলকে সংগঠিত করতে কাজ করেছেন। সেভাবে নগর বিএনপিকে আরও শক্তিশালী করতে কাজ করে যাবেন। দলে যাতে কোনো বিভেদ না থাকে, সেটিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেবেন।

বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের নামে গত তিন বছরে নয়টি মামলা হয়। এসব মামলায় তিনি দুই দফা কারাগারে ছিলেন। গত ১ জুন তিনি উচ্চ আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পান। দীর্ঘদিন আত্মগোপনে থাকার পর গত ১৩ মার্চ বুলবুল ৯ মামলায় জামিনের আবেদন জানিয়ে রাজশাহীর আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। এরপর পর্যায়ক্রমে রাজশাহীর আদালত থেকে সাতটি ও উচ্চ আদালত থেকে দুটি মামলায় জামিন লাভ করেন। গত বছরের ৭ মে বুলবুলকে মেয়র পদ থেকে বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।