যে কারনে সিএনজি চালিত অটোরিকশা থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন যাত্রীরা

cngঅতিরিক্ত ভাড়া আদায়, মিটারে নির্দিষ্ট গন্তব্যে না যাওয়াসহ নানা কারণেই সিএনজি চালিত অটোরিকশা থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন যাত্রীরা। ফলে অনেকটা অলস সময় পার করছেন সিএনজি চালকরা।

পরিবহন সেবা বাড়াতে ২০০২ সালে রাজধানীতে চালু করা হয় সবুজ রংয়ের সিএনজি চালিত অটোরিকশা। শুরুতে এই সেবা মানুষের কাছে বেশ জনপ্রিয় হলেও বর্তমানে সিএনজি’র ব্যবহার যেন বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এদিকে যাত্রীদের অভিযোগ, ভাড়া নিয়ে কথাকাটাকাটি, মিটারে নির্দিষ্ট গন্তব্যে না যাওয়াসহ নানা কারণেই সিএনজি অটোরিকশা ব্যবহারে আগ্রহ হারাচ্ছেন তারা।
অন্যদিকে দিনে দিনে সিএনজি’র কদর কমে যাওয়ার কারণ হিসেবে পাঠাও, শেয়ার এ মোটরবাইক’র মতো অ্যাপসভিত্তিক পরিবহনসেবাকে দায়ী করছেন সিএনজি’র চালকরা। এছাড়া জমাখরচ, গ্যাস ও গ্যারেজ ভাড়াসহ অন্যান্য ব্যয় বেড়ে যাওয়ায় প্রকৃত সেবা দিতে ব্যর্থ হচ্ছেন বলেও জানান চালকরা।

এমন পরিস্থিতিতে পরিবহন বিশেষজ্ঞ ডক্টর শামছুল হক জানান, সিএনজি সেবায় মানুষের আস্থা ফেরাতে মালিক এবং চালকদের আরো আন্তরিক হতে হবে। এছাড়া অ্যাপসভিত্তিক পরিবহনসেবা সব ধরণের পরিবহনে যোগ করা গেলে লাভবান হবেন মালিক, চালক, যাত্রী সবাই।

তবে প্রতিযোগিতামূলক বাজারে নিজেদের টিকিয়ে রাখতে, সিএনজি অটোরিকশা ব্যবসার সঙ্গে জড়িতদের এখনই সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।