মানিকগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

accedentমানিকগঞ্জ: ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের মানিকগঞ্জের মানড়া এলাকায় গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে বাসের সুপারভাইজারসহ তিন যাত্রী নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার রাতে বরিশাল যাওয়ার পথে ঈগল পরিবহনের এই বাস দুর্ঘটনার কবলে পড়ে।

নিহতরা হলেন- বাসের সুপারভাইজার বরিশালের গৌরনদী উপজেলা এলাকার মৃত আবদুল গণি হাওলাদারের ছেলে নজরুল হাওলাদার (৪০), যাত্রী একই উপজেলার বাগজোর গ্রামের মো. ছিদ্দিকুর বেপারীর ছেলে মো. সুমন বেপারী (২৮) ও মুন্সীগঞ্জ শ্রীনগর উপজেলার সন্ধ্যাদিয়া এলাকার ভবরঞ্জন রায়ের স্ত্রী আনজু রায় (৩২)।

এ দুর্ঘটনায় আরও ২৬ যাত্রী আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ২২ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

আর বাকিদের মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, রাতে ঢাকার গাবতলী থেকে যাত্রী নিয়ে ঈগল পরিবহনের ওই বাস (ঢাকা মেট্রো ব ১৪-৮৯৯৪) বরিশাল রওনা হয়। রাত দুইটার দিকে মানিকগঞ্জ বাসস্ট্যান্ডর অদূরে জেলা মৎস্য ভবনের সামনের ওই স্থানে গিয়ে সড়কের পাশের গাছে সজোরে ধাক্কা লাগে।

এ সময় বাসের সম্মুখ দুমড়ে-মুচড়ে গাছের সঙ্গে আটকে যায়। এতে বাসের সুপারভাইজারসহ ২৯ যাত্রী আহত হন।

আহতদের উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক এক নারীসহ তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক তৌহিদ হোসেন জানান, আহতদের মধ্যে পর্যায়ক্রমে ২২ জনের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

আর অন্যদের এখানে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এ ব্যাপারে গোলড়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নুরুল আলম জানান, মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালেই লাশগুলোর ময়নাতদন্তের প্রক্রিয়া করা হচ্ছে। এরপর স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হবে।

আর দুর্ঘটনার পরপরই বাসটিকে সড়িয়ে নিয়ে মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখা হয়েছে।

এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি।