ভাড়া দুই টাকা, না থাকলে ফ্রি!

bus‘শিক্ষার্থীরা আমাদেরই সন্তান। তাদের ভালো মন্দ দেখার দায়িত্বও আমাদের। এখন থেকে অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের জন্য আমাদের পরিবহণের বাস ভাড়া দুই টাকা করে দিলাম। আর কোনো শিক্ষার্থীর কাছে ভাড়া না থাকে তাহলে আমাদের বাসে যাতায়াতে কোনো টাকা দিতে হবে না’ সম্প্রতি নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের জন্য এমনই সু-সংবাদ দিয়েছেন স্থানীয় সুবর্ণ পরিবহনের মালিক গোলাম কিবরিয়া আজাদ।

তিনি জেলা পরিবহন সমিতির সভাপতিও। তিনি আরো বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা আমাদের দেশের ভবিষ্যৎ, প্রত্যেকের উচিত তাদের জন্য কিছু করা। আমার দায়িত্ববোধ থেকে যেটুকু সম্ভব আমি সেটুকু করার চেষ্টা করেছি।’ এছাড়া ও তিনি শিক্ষার্থীদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, ‘বিভিন্ন সময় আমাদের স্টাফরা শিক্ষার্থীদের সাথে ভাড়া নিয়ে বাকবিতণ্ডা করে সেজন্য আমি আন্তরিক ভাবে দুঃখিত।’ ভবিষ্যতে এমন হবে না বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন’। এদিকে, বাস মালিক সমিতির এমন বক্তব্যে শিক্ষার্থীদের মধ্যে স্বস্তি বিরাজ করছে।

এতে করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে থেকে সোনাপুর এবং সোনাপুর থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত রাস্তায় চলাচলে শিক্ষার্থীদের বাড়তি ভাড়া দেয়া থেকে মুক্তি মিলেছে। পূর্বে এই রুটে সিনজি, অটো রিক্সায় ১০ টাকা এবং বাসে ৫ টাকা হারে ভাড়া দিতে হতো। এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের দশম ব্যাচের ছাত্র মহিউদ্দিন খন্দকার বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় এর বাস মিস করলে স্থানীয় পরিবহনে ক্যাম্পাসে আসতে হয়। এই রূটের পরিবহনগুলো হাফ ভাড়া নিতে চায় না। তাই বেশির ভাগ সময় বাকবিতণ্ডা লেগেই থাকে। যাক, এবার অন্তত ভাড়ার বিষয়ে স্বস্তিতে থাকা যাবে।