চট্টগ্রামে দুই লাখ মানুষ পানিবন্দি

floodচট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় রোয়ানুর আঘাতে চট্টগ্রামে আড়াই লাখ ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং প্রায় দুই লাখ লোক পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। শনিবার রাতে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান। তিনি জানান, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে চট্টগ্রামে ৫০ কোটি টাকার ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, গবাদিপশু ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১শ কোটি টাকার। এছাড়া চট্টগ্রাম জেলার বিভিন্ন স্থানে ১২ জন নিহত ও ৪জন নিখোঁজ রয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক। চট্টগ্রামে সন্দ্বীপ উপজেলা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে জানিয়ে মেজবাহ উদ্দিন বলেন, সেখানে প্রায় ১৫ হাজার গবাদিপশু ভেসে গেছে।

ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৫০ হাজারের কাছাকাছি। আর চট্টগ্রামে ৫০ কোটি টাকার ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। গবাদি পশু ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১শ কোটি টাকার। অনেক রাস্তাঘাটও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বাশঁখালীতে পানিতে ভেসে ৭ জন নিহত হয়েছে। সবমিলিয়ে চট্টগ্রামে ১২জন নিহত ও ৪জন নিখোঁজ রয়েছে। চট্টগ্রামের ৪৭৯টি আশ্রয়কেন্দ্রে প্রায় দুই লাখ লোক আশ্রয় নিয়েছে। আগামী দুইদিন ভারি বর্ষণ অব্যাহত থাকবে। সেজন্য আশ্রয় নেওয়া মানুষজনকে এই দুইদিন আশ্রয় কেন্দ্রে থাকতে হবে বলেও জানান তিনি।