আনন্দে ভাসল সিরাজগঞ্জবাসী

sirajগতকাল সারাটি দিন টেনশনে ছিলাম।সব টেনশনের অবসান ঘটলো রাত সাড়ে নটায়।আনন্দে কেদেই ফেললাম নতুন সিরাজগঞ্জ এক্সপ্রেস যখন আধুনিকায়িত সিরাজগঞ্জ বাজার স্টেশনে রাজার মত ঢুকলো ফুল সজ্জিত হয়ে।নেমে এলেন সিরাজগঞ্জ -২ আসনের মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না।হাড় কাপানো শীতের রাত জড়ো হওয়া শতশত মানুষের ভীর ঠেলে সিরাজগঞ্জ স্বার্থ রক্ষা সংগ্রাম কমিটির মন্চে উঠলেন।উল্লাসে ফেটে পড়ল উপস্থিত জনতা।ছাত্র যুবক প্রৌঢ় বৃদ্ধ।শ্রমিক ব্যবসায়ী চাকুরী জীবি ডাক্তার ইন্জিনিয়ার কৃষিবিদ শিক্ষাবিদ সংস্কৃতি কর্মী। সিরাজগন্জের সর্বস্তরের মানুষ।সকল মতাদর্শের মানুষ।নারীরাও বাদ যাননি দেখলাম।প্লাটফরম লোকে লোকারণ্য। নেতার কাছ থেকে খবর শোনার জন্য।

ফুলেল শুভেচ্ছায় অভিনন্দিত নেতা মাইক হাতে নিলেন।উল্লাসে ফেটে পড়ল জনতা।সারা প্লাটফরম মুখরিত হয়ে উঠল শ্লোগানে শ্লোগানে ,আনন্দ ধ্বনীতে।সুখবর দিলেন নেতা।সিরাজগন্জবাসীর প্রানপ্রিয় নেতা ডাঃ হাবিবে মিল্লাত সিরাজগঞ্জবাসীর প্রানেরদাবীর বিষয়ে বয়ে আনা বার্তা, সুখবর জানাতে শুরু করলেন।তিনি জানালেন কমলাপুর স্টেশনের নতুন সিরাজগঞ্জ এক্সপ্রেস এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রেলমন্ত্রীর ঘোষনার কথা।রেল মন্ত্রী ঘোষনা করেছেন শিগগির আমাদের প্রানের দাবীগুলি বাস্তবায়নের জন্য কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।তিনি বলেছেন –

শিগগিরই ১) সিরাজগঞ্জ থেকে শহীদ মনসুর আলী স্টেশন পর্যন্ত বাইপাস রেললাইন নির্মাণ করা হবে।

২)সিরাজগঞ্জ – বগুড়া- রংপুর রেল লাইন স্থাপন করা হবে।৩) জয়দেবপুর থেকে সিরাজগঞ্জ বাজার স্টেশন হয়ে ঈশ্বরদী পর্যন্ত ডুয়েল লাইন স্থাপন করা হবে।সব কিছুই হবে যথাসম্ভব দ্রুত তম সময়ে।

মন্ত্রীর ঘোষনাগুলি ডাঃ মিল্লাত উচ্চারণ করার সঙ্গে সঙ্গে সমস্ত প্লাটফরম, সমস্ত বাজার স্টেশন চত্বর প্রকম্পিত হয়ে উঠছিল জনতার উল্লাস ধ্বনী আর আতসবাজীতে।আতসবাজীর গগনবিদারী শব্দে সিরাজগঞ্জ শহরবাসী কুয়াশা ঢাকা শীতের রাত্রীর ঠান্ডা উপেক্ষা করে রাস্তা য় নেমে, ছাদে উঠে আনন্দ মুহুর্তে সম্পৃক্ত হয়ে যাচ্ছিলেন শহরের বিভিন্ন প্রান্তে থেকেও।

রচিত হল নতুন ইতিহাস।চির স্মরনীয় হয়ে থাকবে গতকালের রাতটির কথা।
চির স্মরনীয় হয়ে থাকবেন অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না।চির স্মরনীয় হয়ে থাকবেন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক,রেলওয়ের ডিজি আমজাদ হোসেন।
সিরাজগঞ্জ স্বার্থ রক্ষা সংগ্রাম কমিটির নামও চির স্মরনীয় হয়ে থাকবে নির্দিধায়ই বলা যায়।

মাননীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রী মো নাসিমকেও শ্রদ্ধাভরে স্মরন করবে সিরাজগঞ্জবাসী।

সর্বোপরি আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নাম স্বর্নাক্ষরে লেখা হয়ে থাকবে সিরাজগন্জের রেলের পুনর্জীবন দান করার জন্য।সিরাজগঞ্জ বাসী তার কাছে চিরঋৃনি হয়ে থাকল।

লেখক :

বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ জহুরুল হক রাজা

সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত), স্বাধীনকণ্ঠ.কম
সভাপতি বিএমএ, সিরাজগঞ্জ
আহবায়ক, সিরাজগঞ্জ স্বার্থরক্ষা সংগ্রাম কমিটি।